এই বৈশাখে যেমন হবে আপনার পোশাক

পহেলা বৈশাখ যেন বাঙালির প্রাণের উৎসব। বৈশাখে বাঙালীরা নানা রূপে, নানা রঙে ও নানা ঢঙে সাজতে পছন্দ করে। ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবাই পহেলা বৈশাখের দিনটিকে উদযাপন করে। কেননা এতে মিশে রয়েছে বাঙালীর প্রাণ ও সত্তা। বাঙালীরা বৈশাখে নিজেকে অপরূপ সাজে সজ্জিত করে এবং ঘরের মাঝেও নিয়ে আসে বৈশাখী আমেজ।

পান্তা ইলিশের মাদকতায় এ দিনে মানুষ যেমন মুগ্ধ হয় তেমনি মুগ্ধ হয় লাল পাড়ের সাদা শাড়ির নারীতে। কেননা পহেলা বৈশাখ মানেই নারীদের লাল পাড়ের সাদা শাড়ি পরার দিন। আর ছেলেরা পায়জামা, পাঞ্জাবী ও ফতুয়া পরে কাটিয়ে দেয় সারাদিন। পহেলা বৈশাখের সাজ সজ্জা ও পোশাক নিয়ে মেয়েদের ভাবনা ও প্রস্তুতির কমতি থাকে না। তারা আগে থেকে শাড়ি, গয়না, জুতা সব গুছিয়ে রাখে।

বৈশাখী শাড়িতে মা মেয়ে; Source: bhorerkagoj.com

বৈশাখ মাসে যেহেতু গরম থাকে, পহেলা বৈশাখে পোশাক ক্রয়ের আগে আরামদায়কতার বিষয়টি মাথায় রাখা উচিত। কেননা অতিরিক্ত গরমে যেকোনো ভারী পোশাক পরে বাইরে বের হওয়া যায় না। তাই বৈশাখে সুতি পোশাক বেছে নেওয়া উচিত। সুতি ছাড়াও বেছে নিতে পারেন লিনেনের পোশাক। এছাড়াও বৈশাখের সাজে নিজেকে পরিপূর্ণ ও সতেজ রাখতে যেসব পোশাক বেছে নিতে পারেন সেগুলো হলো-

শাড়ি

বৈশাখের সাজে নিজেকে সাজানোর সবচেয়ে প্রচলিত পোশাক হলো শাড়ি। শাড়িতে নারীর অপরূপ সৌন্দর্য প্রকাশ পায়। লাল সাদা রঙের চিরায়ত ফ্যাশনের পাশাপাশি নারীরা যেকোনো উজ্জ্বল রঙের পোশাক পরতে ভালোবাসে। লালা পাড়ের সাদা শাড়ি ছাড়াও আপনি বেছে নিতে পারেন মেরুন, গোলাপী, জলপাই, বেগুনি, নীল সহ অন্য রঙের শাড়ি।

গোলাপী শাড়িতে বৈশাখ; Source: ArthoSuchak

যেহেতু পহেলা বৈশাখে লাল সাদা শাড়ির আবেদন বেশি থাকে আপনি পছন্দের পোশাক হিসেবে বেছে নিতে পারেন লাল সাদা শাড়িকে। বাজারে বিভিন্ন ধরনের শাড়ি পাওয়া যায়। সুতি, পশমি, সিল্ক, কাতান, সিল্ক কাতান, তাঁত, টাঙ্গাইল ইত্যাদি। এখন আবার জর্জেট শাড়িরও প্রচলন এসেছে। আপনি আপনার পছন্দের শাড়িটি বেছে নিন আরামদায়কতার বিচারে।

বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজগুলো বৈশাখের আমেজে পোশাকের ডিজাইন করে। কোনো কোনো ব্রান্ড শুধু লাল ও সাদার মিশেলে ডিজাইন করে, আবার কেউ কেউ আরও কিছু আমেজের শাড়ি নিয়ে আসে। দেশের শীর্ষ ফ্যাশনহাউস ‘রঙ’ সহ অন্যান্য হাউজগুলো বৈশাখের পোশাকে নিজস্ব সৃজনশীলতার পরিচয় দেয়। কোনো কোনো ব্রান্ড বৈশাখের হাতপাখা, ঢোল, পাতা, কল্কা সহ আরো নানা মোটিফ ফুটিয়ে তোলে শাড়ি কিংবা অন্যান্য পোশাকে।

আপনি যদি বৈশাখে নিজেকে আরেকটু অন্যভাবে উপস্থাপন করতে চান তাহলে পরতে পারেন লাল রঙের ব্লাউজ এবং এক রঙের লাল শাড়ি। ব্লাউজ তৈরি করতে পারেন নৌকা গলা দিয়ে। অথবা ব্লাউজের পেছনে কাজ করাতে পারেন মনের মতো। তাহলে আপনাকে লাগবে অন্যদের চেয়ে আলাদা।

বৈশাখে নারী পুরুষের পোশাক, Source: currentbdnews.com

ভালো মানের বৈশাখী শাড়ি কেনার জন্য যেতে পারেন নিউমার্কেট, হকার্স মার্কেট, রাজধানীর টোকিও স্কয়ার, বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজ ও শোরুম গুলোতে। এছাড়াও আপনার হাতের কাছে যেকোনো মার্কেটে গেলে বৈশাখী শাড়ি কিনতে পারবেন। অনলাইনের বিভিন্ন পেইজে উৎসব অনুযায়ী চমৎকার সব শাড়ির দেখা মিলে।

সালোয়ার কামিজ

অতিরিক্ত গরমে যারা অস্বস্তি বোধ করার কারণে শাড়ি পরতে পারেন না, তাদের জন্য বৈশাখের উপযুক্ত পোশাক হলো সালোয়ার কামিজ। গরমে পড়ার জন্য সুতি কাপড়ের পোশাক বেছে নিতে পারেন। তবে লিনেন, সামু সিল্ক, ওয়েটলেস জর্জেটের পোশাকও পরতে পারেন। সবকিছু নির্ভর করবে আপনার মেজাজের উপর। বৈশাখে লাল সাদা চিরায়ত ফ্যাশনের বাইরেও অন্য যেকোনো রঙের সালোয়ার কামিজ পরতে পারেন।

পোশাকে বৈশাখী আমেজ; Source: LeisFita Blog

তবে লাল কিংবা সাদা এক রঙের পোশাক বেছে নিতে পারেন। সালোয়ার কামিজ ছাড়াও বিভিন্ন মার্কেটে বিভিন্ন রঙের কূর্তি পাওয়া যায়। আপনি চাইলে কূর্তি, গাউন ইত্যাদি পরতে পারেন। তবে বাঙালীয়ানা ভাব আনার জন্য সালোয়ার কামিজ কিংবা শাড়ি পরা উত্তম। বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজগুলোতে ওয়ান পিস পাওয়া যায় মাত্র ১০০০ থেকে ১২০০ টাকার মধ্যে। আপনি চাইলে ওয়ান পিস কিনে তার সঙ্গে সালোয়ার ও ওড়না মিলিয়ে নিতে পারেন।

পুরুষের পাঞ্জাবী ও ফতুয়া

বৈশাখ যেন সবার ঘরে ঘরে ঈদের মতো আনন্দের জোয়ার নিয়ে আসে। ছোট বড় সকলেরই বৈশাখের পোশাক চাই। তাছাড়া পরিবারের সকলে মিলে নতুন পোশাক পরে ভোর বেলায় রমনার বটমূলে যাওয়ার মজা আলাদা। বৈশাখে নিজেকে বৈশাখী আমেজে সাজিয়ে নিতে পুরুষেরাও বসে নেই। বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজ ও মার্কেটগুলোতে পুরুষের জন্য তৈরি করা হয় বৈশাখী মোটিফের পাঞ্জাবী, পায়জামা, ফতুয়া ইত্যাদি।

বৈশাখের লাল পাঞ্জাবী; Source: Deshi Lifestyle

আগে ফতুয়ার ব্যাপক প্রচলন থাকলেও ইদানিং পাঞ্জাবীর প্রচলন বেশি দেখা যায়। বৈশাখের পাঞ্জাবীতে আঁকা থাকে নানা ডিজাইন। যেমন ঢোল, বাঁশি, একতারা। এই ঐতিহ্যবাহী ডিজাইনগুলো বৈশাখের পোশাককে আরো যেন রঙিন করে তোলে।

বৈশাখী মোটিফের পাঞ্জাবী ছাড়াও এক রঙের সাদা পাঞ্জাবীর গলায় ও বুকে লাল রঙের কাজ কিংবা লাল রঙের পাঞ্জাবীর গলায় সাদা সুতার কাজের পাঞ্জাবী অথবা গলা ও পিঠে সাদামাটা কাজের পাঞ্জাবীগুলোর বেশ প্রচলন রয়েছে। ফ্যাশন সচেতন পুরুষেরা বৈশাখে গাঢ় নীল বেগুনি, নেভি ব্লু ইত্যাদি রঙের পাঞ্জাবী পরে থাকে।

পাঞ্জাবী বাংলাদেশের যেকোনো মার্কেটে পাওয়া যায়। আপনি আপনার বাড়ির কাছের যেকোনো মার্কেট থেকে ভালো পাঞ্জাবী কিনতে পারবেন। তাছাড়া বিভিন্ন শো রুম ও ফ্যাশন হাউসেও ভালো পাঞ্জাবী পাওয়া যায়।

শিশুদের পোশাক

পহেলা বৈশাখে শিশুদের আয়োজনেরও কমতি থাকে না। শিশুরাও বাবা মায়ের মতো নতুন পোশাকে সাজে। শিশুদের জন্য বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজে তৈরি করা হয় বৈশাখী শাড়ি

বৈশাখী সাজে শিশুরা; source:BD Times365

শিশুদের বৈশাখের শাড়িতে লাল, সাদা ও আরো কিছু উজ্জ্বল রঙকে প্রাধান্য দেওয়া হয়। রাজধানীর যেকোনো মার্কেটে নায্য মূল্যে শিশুদের পোশাক পাওয়া যায়। শিশুদের শাড়ি গুলো ১০০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়।

Featured Image Source: Jugantor

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.