বয়ঃসন্ধিকালের পরেও উচ্চতা বাড়াবেন যেভাবে

হয়তো আপনি শুনেছেন যে, বয়ঃসন্ধি পার হয়ে গেলে শরীরের বৃদ্ধি একটু বাধাপ্রাপ্ত হয় এবং সেজন্য মানুষ আর লম্বা হয় না। হয়তো আপনার উচ্চতা স্বাভাবিক মানুষদের তুলনায় একটু কম। অথবা আপনার স্বপ্ন ছিলো আরেকটু লম্বা হওয়ার। এসমস্ত ক্ষেত্রে হয়তো আপনাকেও কিছু বাঁকা কথা হজম করতে হয়। তাই আমাদের আজকের আয়োজন বয়ঃসন্ধিকালীন সময় পার হওয়ার পরেও কীভাবে আপনি আরো একটু লম্বা হতে পারেন সে-বিষয়ে।

১. সঠিক খাবার গ্রহণ করুন

আমরা যা খাবার হিসেবে যা গ্রহণ করি তার গুরুত্ব অপরিসীম। খাদ্য থেকে যে পুষ্টি পাওয়া যায় তা শরীরের প্রতিটি কাজের জন্য দরকারি। তাই খাবার যে শরীরের বেড়ে ওঠা ও উচ্চতা বৃদ্ধিতে কতোটা গুরুত্বপূর্ণ তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তাই উচ্চতা বৃদ্ধিতে সুষম খাদ্য অতীব জরুরি। পাশাপাশি এটি আপনার হরমোনকে ভারসাম্যপূর্ণ রাখে এবং আপনার শরীরের মৃত কোষগুলোর জায়গায় পুনরায় নতুন কোষ জন্মিয়ে ক্ষয়রোধ করে।

বেছে নিন সুষম খাদ্য; Source: Harvard Health

খাদ্যে এমন কিছু ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ আছে, যা আপনার উচ্চতা বৃদ্ধিতে অনুঘটক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। সেগুলো হচ্ছে:

  • ক্যালসিয়াম
  • ভিটামিন ডি
  • ভিটামিন বি১
  • জিঙ্ক
  • ফসফরাস

২. সকালের নাস্তা নিয়মিত সেরে নিন

এমন কিছু মানুষের দেখা আপনি পাবেন যারা খুব দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে সকালের নাস্তা না করলে আপনি আস্তে আস্তে আরো স্লিম হবেন। আপনি যদি এই পথে হাঁটা শুরু করে থাকেন তবে আপনার জন্য দুঃসংবাদ অপেক্ষা করছে।

নিয়মিত সকালের নাস্তা করুন; Source: BBC

সারারাত ঘুমিয়ে থাকার পরে প্রতিদিন সকালে উঠে নিয়মিত নাস্তায় সুষম ও স্বাস্থ্যকর খাবার খেলে আপনার শরীরের মেটাবলিজম বৃদ্ধি পায়। এতে আপনার উচ্চতা বৃদ্ধির সম্ভাবনা আরো বেড়ে যায়।

৩. নিয়মিত ব্যায়াম করুন

কিছু সাধারণ ও জনপ্রিয় ব্যায়াম যেগুলো আপনার পেশি সম্প্রসারণে সহায়তা করে সেগুলো আসলে আপনার উচ্চতা বৃদ্ধিতেও সহায়তা করে। তাই বয়ঃসন্ধিকালের পরেও উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য ব্যায়াম হচ্ছে একটি প্রাকৃতিক পদ্ধতি।

ব্যায়ামের সাথে বন্ধুত্ব করুন; Source: SMART Fit

উঁচু বারে ঝোলা, পায়ের আঙ্গুলের উপর দাঁড়ানো, দড়ি লাফ, যোগব্যায়াম ইত্যাদি আপনার কয়েক ইঞ্চি উচ্চতা বৃদ্ধিতে অত্যাবশ্যকীয় ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৪. পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমান

পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমানো উচ্চতা বৃদ্ধিতে খুবই দরকারি। কারণ উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য যে গ্রোথ হরমোনগুলো কার্যকরী ভূমিকা পালন করে সেগুলো সাধারণত ঘুমের মাঝেই উৎপন্ন হয়।

ঘুমের সাথে সমঝোতা নয়; Source: Spirit Aroma

নিয়মিত ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা ঘুম আপনার প্রতিটি টিস্যুকে নতুনভাবে গড়ে তুলে ও উজ্জীবিত করে। আর তাই পরের দিন আপনি থাকবেন শান্ত ও ভীষণ কর্মক্ষম।

৫. খেলাধুলাপ্রেমী হোন

আপনি কি কখনো খেয়াল করেছেন, বাস্কেটবল খেলোয়াড়েরা এবং সাঁতারুরা কতো বেশি লম্বা হয়? এর পিছনে দায়ী হচ্ছে তারা যে খেলাগুলোর সঙ্গে জড়িত সেগুলো আক্ষরিক অর্থেই উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য অনেক বেশি প্রয়োজনীয়। শুধু এই দুটো নয় বরং মার্শাল আর্ট, সাইক্লিং, টেনিস, ব্যাডমিন্টন, বেসবল ইত্যাদি খেলাধুলা আপনাকে লম্বা হতে অনেক সাহায্য করে।

সাঁতার একটি ভালো ব্যায়াম; Source: WP Camp

তাই আপনি যদি খেলাধুলাপ্রেমী হোন তবে বিকাল বেলায় কয়েকজন সঙ্গী-সাথী যোগাড় করে বের হয়ে কাছাকাছি কোন মাঠে বা খোলা জায়গায় শুরু করে দিন এবং কয়েকদিন পরে নিজেই অনুভব করুন আপনার উচ্চতার পার্থক্য।

৬. অতিরিক্ত খাবার বাদ দিন

যদি আপনি একটু অতিরিক্ত খাবার খেতে পছন্দ করেন তবে বয়ঃসন্ধিকাল পার হয়ে যাওয়ার পরেও উচ্চতা সমভাবে বৃদ্ধি পাওয়া আপনার জন্য একটু কঠিন হয়ে যাবে। এই অভ্যাস আপনাকে ত্যাগ করতে হবে। কারণ আপনি যখন বেশি পরিমাণে খাবার গ্রহণ করেন তখন আপনার শরীরের অভ্যন্তরে পরিপাকক্রিয়া ধীরগতিতে চলে। তখন শরীর বৃদ্ধির জন্য যতোটুকু পুষ্টি কার্যকরীভাবে শোষণ করা দরকার, তা আপনি পাবেন না।

বাড়তি খাবারকে ”না’ বলুন; Source: INA Online

ফলে উচ্চতা বৃদ্ধি বাধাপ্রাপ্ত হবে। তাই দিনে ৩ বার বেশি খাওয়ার পরিবর্তে ৬ বার কম করে খান। এতে আপনার বৃদ্ধির জন্য পর্যাপ্ত পুষ্টি আপনি খুব ভালোভাবেই পাবেন।

৭. বেশি পানি পান করুন

আমরা অনেকেই সারাদিনের ব্যস্ততার জন্য পানি বেশি করে খেতে পারি না। কারো কারো আবার এই অভ্যাস নেই তেমন। পানি কম পান করেই তারা দিব্যি বেঁচে আছেন। আসলে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান না করলে আমাদের বৃদ্ধি ঠিকভাবে হয় না। শরীরে প্রতিদিনই টক্সিন পদার্থ জমা হয় যা শরীরের জন্য ক্ষতিকারক।

পানির অপর নাম জীবন; Source: VectorStock

পানি বেশি করে পান করলে এই টক্সিন পদার্থ আমাদের শরীর থেকে বের হয়ে যায়। তাই প্রতিদিন কমপক্ষে ৮ গ্লাস পানি পান করলে শরীরের সমস্ত টক্সিন বের হয়ে যায় এবং আমাদের মেটাবলিজম তখন আরো কার্যকর হয়। তাই আপনার উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য প্রতিদিন অন্তত ৮ গ্লাস করে পানি পান করার বিকল্প নেই।

৮. সঠিক অঙ্গবিন্যাসের (Posture) দিকে খেয়াল রাখুন

সঠিকভাবে না দাঁড়ালে বা বসলে আপনার মেরুদন্ডের উপরে চাপ পড়ে এবং আপনার উচ্চতা বৃদ্ধিতে বাঁধা পড়ে। যদি আপনি সবসময় সঠিকভাবে মাথা, ঘাড় ও মেরুদণ্ড এক লাইনে সোজা করে রাখতে পারেন তবেই আপনার উচ্চতা বৃদ্ধিতে আর সমস্যা হবে না।

লক্ষ্য রাখুন অঙ্গবিন্যাসের দিকেও; Source: The Daily Star

৯. বিএমআই (Body Mass Index BMI) বজায় রাখুন

শরীরের বিএমআই সুস্থতার জন্য খুব দরকারি। একই সাথে শরীর বৃদ্ধির জন্যও এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। শরীরের বিএমআই বজায় রাখুন, কোমরের মাপ ঠিক রাখুন। এতে করে আপনার কাঙ্ক্ষিত উচ্চতা আপনি সহজেই পেতে পারবেন।

১০. ক্ষতিকর সমস্ত কিছু বাদ দিন

ধূমপানসহ সকল নেশাজাতীয় দ্রব্য শরীরের জন্য এমনিই ক্ষতিকর। এগুলো শুধু বৃদ্ধির জন্য নয় বরং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনেরও অন্তরায়। আপনার কাঙ্ক্ষিত উচ্চতা অর্জনের জন্য আপনাকে এই সমস্ত ক্ষতিকর স্বভাব বাদ দিতে হবে। তাহলেই আপনি সুস্থভাবে বেঁচে থাকার পাশাপাশি সঠিকভাবে বেড়েও উঠবেন।

আমাদের আজকের এই আয়োজন থেকে আপনি নিশ্চয়ই খুব ভালো কিছু টিপস পেয়েছেন। এখন আপনিও জানেন যে, বয়ঃসন্ধিকাল পেরোনোর পরেও মানুষের উচ্চতা বৃদ্ধি পাওয়া সম্ভব। শুধু তাই না, আপনি যদি নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন করেন, তবে আপনি খুব সুন্দরভাবে বেড়ে উঠতে পারবেন এবং আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বাঁচবেন।

ফিচার ইমেজ: Pinterest

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.