জেনে নিন চুলের বৃদ্ধির জন্য উপকারী কিছু মিনারেল সম্পর্কে

চুলের দ্রুত বৃদ্ধি কে না চায়? চুলকে আকর্ষণীয়, সুন্দর, ঝলমলে, উজ্জ্বল করে তোলায় নারী পুরুষ উভয়ের চেষ্টার ত্রুটি থাকে না। চুলের যত্নে পুরুষেরা কম সচেতন হলেও নারীদের সচেতনতা যেন দ্বিগুণ। কারণ আবহাওয়া ও পরিবেশের নেতিবাচক প্রভাবের ফলে শতকরা ৯০ ভাগ মানুষের চুল পড়ে যাচ্ছে। আর এই চুল পড়ার ফলে শঙ্কায় পড়ছেন অনেকেই। চুল পড়া নিয়ন্ত্রণের ঘরোয়া কিছু উপায় সম্পর্কে পূর্বের লেখায় বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

শুধু ঘরোয়া উপায়গুলো অনুসরণ করলে চুল পড়ার সংখ্যা কমবে তা নিশ্চিতভাবে বলা যায় না। চুল পড়া প্রতিরোধ ও দ্রুত চুল বৃদ্ধির জন্য হেয়ার মাস্ক, নারকেল তেলের ব্যবহার যেমন প্রয়োজন তেমনি প্রয়োজন ভিটামিন ও মিনারেল সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া। ভিটামিন ও মিনারেলস চুলকে ভেতর থেকে পুষ্টি দেয়। জেনে নিন দ্রুত চুল বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয় মিনারেল সম্পর্কে।

স্বাস্থ্যজ্জ্বল চুলের জন্য প্রয়োজনীয় মিনারেল

সতেজ ও প্রাণবন্ত চুলের জন্য মিনারেল খুব প্রয়োজন। যদিও মিনারেল সম্পর্কে অনেকেই তেমন সচেতন নয়।, মিনারেল জাতীয় খাবার গুলো চুলের পুষ্টি যোগাতে ও চুলকে স্বাস্থ্যজ্জ্বল করতে ভূমিকা রাখে। জেনে নিন চুলের বৃদ্ধিকারী প্রয়োজনীয় মিনারেল সম্পর্কে।

আয়রন যেভাবে চুল বৃদ্ধিতে সহায়তা করে

আয়রন বা লৌহ শরীরের জন্য অতি প্রয়োজনীয় একটি উপাদান। এটি চুলের জন্যও প্রয়োজনীয়। চুলকে শক্ত ও মজবুত করতে এর জুড়ি নেই। চুলের গোড়ায় রক্ত সঞ্চালন করতে আয়রন সাহায্য করে।

ছবিসূত্রঃ stylecraze.com

আয়রনের ঘাটতি থাকলে আপনার চুল নিস্তেজ, প্রাণহীন হয়ে যাবে। এটি কোষের মধ্যে অক্সিজেন সরবরাহ করে। তাই স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পেতে চাইলে আয়রন সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করুন।

আয়রণ সমৃদ্ধ খাবার

  • লাল মাংস
  • ফার্মের মুরগী
  • ডিম
  • পালং শাক
  • গরুর কলিজা
  • ডাল
  • চকোলেট
  • ছোলা
  • বুট
  • টমেটোর জুস
  • আলু
  • কাজুবাদাম
  • কিশমিশ
  • খোরমা বা খুবানি

দ্রুত চুল বৃদ্ধির জন্য জিংক

দ্রুত চুল বড় হোক সেটা সবাই চায়। তবে অনেকেই জানে না কোন কোন খাবার বা উপাদান গ্রহণ করলে দ্রুত চুল বৃদ্ধি পায়। জিংক চুল বৃদ্ধির জন্য অতি প্রয়োজনীয় উপাদানগুলোর মধ্যে একটি।

ছবিসূত্রঃ stylecraze.com

স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুলের জন্য জিংক গ্রহণ করা প্রয়োজন। চুল পড়া কমাতে, চুলের গোড়া শক্ত করতে জিংকের অবদান রয়েছে। জিংক হরমোনাল ভারসাম্য রক্ষা করে এবং চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

যেসকল খাবারে জিংক আছে

  • বাদাম
  • ডিম
  • মিষ্টি আলু
  • পালং শাক
  • ছোলা
  • ছোট মাছ
  • চিংড়ি
  • শিম
  • বরবটি
  • যব
  • গরু ও খাসির কলিজা

চুলের বৃদ্ধিতে ম্যাগনেশিয়াম

চুলের বৃদ্ধিতে বিভিন্ন ভিটামিন কার্যকরী ভূমিকা রাখে। চুলের বৃদ্ধিতে ম্যাগনেশিয়ামও খুব উপকারী। গবেষণা থেকে জানা যায় ম্যাগনেশিয়ামের অভাবে চুল নিস্তেজ হয়ে পড়ে, রুক্ষ হয়ে যায় ও ভেঙে যায়।

ছবিসূত্রঃ stylecraze.com

চুলের ভঙ্গুরতা দূর ও চুলে প্রাণ ফিরে পাবার জন্য ম্যাগনেশিয়ামের বিকল্প নেই। আপনি যদি স্বাস্থ্যজ্জ্বল সুন্দর চুল চান তাহলে ম্যাগনেশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খান।

ম্যাগনেশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার

  • বাদাম
  • স্যামন মাছ
  • বীজ
  • বন্য ধান
  • বিভিন্ন শাকসবজি ও ফলমূল।

জন্মপূর্বকালীন ভিটামিন কি চুল বৃদ্ধিতে সহায়তা করে?

গর্ভবতী মহিলারা শিশুর জন্মের পূর্বে যেসকল পরিপূরক ভিটামিন গ্রহণ করে সেগুলো চুলের বৃদ্ধির জন্য সহায়ক ভূমিকা রাখে। এর অন্যতম কারণ হলো এসব পরিপূরক ভিটামিনে উৎকৃষ্ট পরিমাণে ফলিক এসিড আছে। এসব পরিপূরক ভিটামিনে ভিভিসক্যাল ও নওরেজ রয়েছে।

ছবিসূত্রঃ stylecraze.com

ভিভিসক্যালে উচ্চ মানে ভিটামিন সি এবং ওমেগা ফ্যাটি ৩ এসিড আছে। গবেষকরা বলেন এটি জাদুর মতো কাজ করে। নওরেজ ও চুল বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখে। এটি চুলের কোনো ক্ষতি করে না।

চুল বৃদ্ধির জন্য প্রোটিন

চুল বাঁচে প্রোটিনে। আপনার চুল ততটা সমৃদ্ধ ও শক্তিশালী ঠিক যতটা প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার আপনি খান। প্রোটিন চুলের জন্য কতটা উপকারী তা বলার অপেক্ষা রাখে না। প্রোটিন হাড় গঠনে, ক্ষয়পূরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার পাশাপাশি চুলের বৃদ্ধিতেও ভূমিকা রাখে।

ছবিসূত্রঃ stylecraze.com

চুলকে সতেজ, স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ও প্রাণোচ্ছ্বল রাখতে সহায়তা করে প্রোটিন। এটি ওজন কমাতে সাহায্য করে এবং পেশী গঠনেও সাহায্য করে।

প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার

  • ডিম
  • খেজুর
  • শাকসবজি
  • দুধ
  • পনির
  • অঙ্কুরিত ছোলা বা বীজ
  • বাদামের মাখন
  • ডাল
  • মাছ
  • শিমের বীচি
  • মুরগী ও গরুর মাংস
  • টক দই

চুল বৃদ্ধিতে ওমেগা- ৩ ফ্যাটি এসিড

ওমেগা- ৩ ফ্যাটি এসিড হতাশা ও বিষণ্ণতা দূরীকরণ হিসেবে সুপরিচিত। এটি বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করে, হার্ট ভালো রাখে, হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া স্বাভাবিক রাখে। এটি ত্বকে পুষ্টি যোগায়, ত্বককে মসৃণ করে এমনকি চুলেও পুষ্টি যোগায়। চুলকে ঝলমলে ও আকর্ষণীয় করতে সাহায্য করে ওমেগা- ৩ ফ্যাটি এসিড।

ছবিসূত্রঃ stylecraze.com

এটি দেহের ভেতরের কোষকে সুস্থ ও সবল রাখতে সহায়তা করে এবং প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান সরবরাহ করে। যার ফলে মাথার ত্বক পূর্ণ পুষ্টি লাভ করতে পারে। ত্বক ও চুলের যত্নে ওমেগা- ৩ ফ্যাটি এসিডের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ।

ওমেগা- ৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার

  • সামুদ্রিক মাছ
  • স্যামন মাছ
  • কড মাছের যকৃত ও তেল
  • ঝিনুক
  • সামুদ্রিক পোনা মাছ
  • বীজ
  • চিয়া বীজ
  • আখরোট
  • সয়াবিন

পরিপূরক ভিটামিন

যদিও ইতিপূর্বে পরিপূরক ভিটামিনের কথা বলেছি। পরিপূরক ভিটামিন চুলের জন্য উপকারী। কারণ এই ধরনের পরিপূরক ভিটামিনে ভিটামিন ও মিনারেল জাতীয় পুষ্টি উপাদান বজায় থাকে।

ছবিসূত্রঃ stylecraze.com

আপনি যদি ভিটামিন ও মিনারেল সমৃদ্ধ খাবার নাও খেতে পারেন, এই পরিপূরক ভিটামিন তার চাহিদা পূরণ করে দিবে। অবশ্য পরিপূরক ভিটামিন গ্রহণের পূর্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে তবে গ্রহণ করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.