অস্কার না জেতা অভিনেতারা

দরজায় কড়া নাড়ছে অস্কারের উৎসব। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাস্ট্রের লস এঞ্জেলেসে অবস্থিত ডলবি থিয়েটারে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে একাডেমী অ্যাওয়ার্ডস এর ৯১তম আসর। প্রতিবারের মত এবারেও এর আয়োজক যুক্তরাস্ট্রের একাডেমী অফ মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস।

আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে অস্কারের ৯১তম আসর; Source: Oscars

চলচ্চিত্র দুনিয়ায় এই পুরষ্কারটিকে মানা হয় একজন অভিনেতার অভিনয় দক্ষতার সবচেয়ে বড় স্বীকৃতি হিসেবে। তাই সব অভিনেতাই স্বপ্ন দেখেন একদিন নিজের অভিনয়গুণে জয় করবেন পরম অরাধ্য অস্কার পুরষ্কার।

মার্লোন ব্রান্ডো, জ্যাক নিকোলসন, রবার্ট ডি নিরো, আল পাচিনো, রবার্ট ডুভাল, ক্রিস্টফার ওয়াকেন থেকে শুরু করে হালের লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও, এডি রেডমেইন, ম্যাথিউ ম্যাকানহে প্রত্যেকেই তাদের অসাধারণ অভিনয়ের স্বীকৃতি স্বরুপ জিতেছেন অস্কারের পুরষ্কার।

২০১৬ সালের সেরা অভিনেতার পুরষ্কার হাতে লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও; Source: The Independent

তবে কিছু অভিনেতা আছেন, ভাগ্য যাদের সহায় হন না। অসাধারণ অভিনয়শৈলি প্রদর্শনের জন্যে একাধিকবার মনোয়ন পেয়েও, অস্কারের মূর্তিটি তাদের হাতে ধরা দেয় নি। এমনি কিছু দুর্দান্ত অভিনেতার কথা আমরা জানবো আমাদের আজকের আয়োজনে।

রবার্ট ডাউনি জুনিয়র

এ যুগের সিনেমা দর্শকরা আয়রন ম্যান বলতে এক নামে ডাউনি জুনিয়রকেই চেনেন। তবে আয়রন ম্যানের বর্ম পরে মার্ভেল সিনেম্যাটিক ইউনিভার্সকে আকাশচুম্বী সাফল্য এনে দেবার আগেও ডাউনি জুনিয়র একজন অসাধারণ অভিনেতা ছিলেন। এর একটি দৃষ্টান্ত সিনেমা জগতের প্রবাদ পুরুষ চার্লি চ্যাপলিনকে নিয়ে তৈরি বায়োপিকে, চ্যাপলিনের ভূমিকায় তার অভিনয়। ১৯৯২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই চলচ্চিত্রে অসাধারণ অভিনয়ের জন্যে অস্কারে মনোনয়নও পান তিনি।

চার্লি চ্যাপলিনের চরিত্রে ডাউনি জুনিয়র; Source: Fanpop

এরপরে ব্যাক্তিগত জীবনে নানা ঘটনা দুর্ঘটনার জন্যে অনেক রকমের চড়াই উৎরাই পেরিয়ে হারিয়ে যেতে বসেন ডাউনি জুনিয়র। ২০০৮ সালে ‘আয়রন ম্যান’ চলচ্চিত্রটি মুক্তির পরপরই নিজেকে আবারো হলিউডের প্রথম সারির অভিনেতা হিসেবে দাখিল করেন তিনি। সে বছরেই ‘ট্রপিক থান্ডার’ চলচ্চিত্রটিতে একজন অস্ট্রেলিয়ান অভিনেতার ভূমিকায় অভিনয় করে আবারো সেরা অভিনেতার অস্কারের মনোনয়ন পান তিনি। কিন্তু এবারেও ভাগ্যদেবী সহায় হন নি। আর তাই অস্কার তার জন্যে অধরাই থেকে যায়।

এডওয়ার্ড নর্টন

এড নর্টনকে বলা হয় তার প্রজন্মের অন্যতম সেরা একজন অভিনেতা। তবে খেয়ালী স্বভাবের এই অভিনেতা এখনো অস্কার জিততে পারেন নি। রুপালী পর্দায় খ্যাতি কুড়ানোর আগে মঞ্চ কাঁপিয়ে এসেছিলেন এই ব্রিটিশ অভিনেতা। ১৯৯৬ সালে নিজের প্রথম ছবি দিয়েই বাজিমাত করেন তিনি। ‘প্রাইমাল ফিয়ার’ চলচ্চিত্রে মানসিক ভাবে অসুস্থ এক কিশোরের অভিনয় তাক লাগিয়ে দেয় সবাইকে। প্রথম অস্কার মনোনয়ন পান সেবারই। যদিও তা ছিল সহ-অভিনেতাদের তালিকায়।

প্রাইমাল ফিয়ার চলচ্চিত্রে এডওয়ার্ড নর্টন; Source: YouTube

পরের বছর ‘আমেরিকান হিস্টোরি-এক্স’ চলচ্চিত্রের অভিনয়ের জন্য আবারো মনোনয়ন পান। এবার পান সেরা অভিনেতার তালিকায়। কিন্তু অরাধ্য অস্কার কোনোবারই ধরা দেয় নি তার হাতে।

জনি ডেপ

চরিত্রাভিনেতা হিসেবে খ্যাত জনি ডেপ তার ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন কিশোর বয়সীদের উদ্দ্যেশ্যে বানানো কিছু টিভি সিরিজ দিয়ে। চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশের পর বহু বছর দর্শকদের মুগ্ধ করে রেখেছেন তার অসাধারণ অভিনয় শৈলি দিয়ে।

জ্যাক স্প্যারোর চরিত্রে জনি ডেপ; Source: digitaltrends.com

অস্কারের জন্যে ডেপ মনোনয়ন পেয়েছেন তিনবার। প্রথম বার পেয়েছিলেন ‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ানঃ দ্য কার্স অব দ্য ব্ল্যাক পার্ল’ চলচ্চিত্রের মাতাল জাহাজী ক্যাপ্টেন জ্যাক স্প্যারোর চরিত্রে অভিনয় করে। দ্বিতীয়বার মনোয়ন পান পরের বছরেই ‘ফাইন্ডিং নেভারল্যান্ড’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে। ২০০৮ সালে ‘সুইনি টডঃ দ্য ডিমন বারবার অফ ফ্লীট স্ট্রীট’ চলচ্চিত্রের জন্যে তৃতীয়বারের মত অস্কার মনোয়ন পান ডেপ। তবে কোনবারই পুরষ্কারটি নিয়ে বাড়ি ফিরতে পারেন নি। সেই থেকে আর মনোনয়নও পাননি।

ব্র্যাড পিট

হলিউড তথা সমগ্র বিশ্বের অন্যতম সুদর্শন পুরুষ হিসেবে পরিচিত ব্র্যাড পিট। শুধু দেখতেই গ্রীক দেবতাদের মত সুদর্শন নন, অভিনয়েই দারুন পারদর্শী ট্রয় তারকা। ২০১৪ সালে ‘টুয়েলভ ইয়ারস আ স্লেভ’ চলচ্চিত্রের প্রযোজক হিসেবে অস্কার জিতলেও, অভিনেতা হিসেবে অস্কারটা এখনো অধরা আঞ্জেলিনা জোলির সাবেক স্বামীর।

মানিবল চলচ্চিত্রে ব্র্যাড পিট; Source: newslang89.wordpress.com

১৯৯৬ সালের ‘টুয়েল্ভ মাংকিস’ চলচ্চিত্রের জন্যে সহঅভিনেতাদের তালিকায় মনোনয়ন পান পিট। প্রধান অভিনেতার তালিকায় মনোনয়ন পান ২০০৯ সালে ‘দ্য কিউরিয়াস কেস অফ বেঞ্জামিন বাটোন’ এবং ২০১২ সালের ‘মানিবল’ চলচ্চিত্রগুলোর জন্যে।

টম ক্রুজ

নতুন প্রজন্মের সিনেমা দর্শকদের কাছে টম ক্রুজ মিশোন ইম্পসিবল তারকা হিসেবেই পরিচিত। তবে একসময় ড্রামা নির্ভর চলচ্চিত্রে দারুন মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন ‘টপ গান’ ছবির ম্যাভেরিক চরিত্রে অভিনয় করা এই অভিনেতা।

জেরি ম্যাগুয়ার চলচ্চিত্রে টম ক্রুজ; Source: 13 Complete Facts About ‘Jerry Maguire’ | Mental FlossMental Floss

১৯৮৯ সালের ‘বর্ন অন দ্য ফোর্থ অফ জুলাই’ চলচ্চিত্রের জন্যে প্রথম অস্কার মনোনয়ন পান ক্রুজ। এরপর ১৯৯৬ সালের ‘জেরি ম্যাগুয়ার’ চলচ্চিত্রে স্পোর্টস এজেন্ট হিসেবে অসাধারণ অভিনয়ের জন্যে দ্বিতীয়বার মনোয়ন পান তিনি। সবশেষে ১৯৯৯ সালে ‘ম্যাগনোলিয়া’ ছবিটির জন্যে আরো একবার মনোনয়ন পান ক্রুজ। কিন্তু প্রতিবারই অস্কার যেন তার কাছে সোনার হরিণই হয়ে ছিল।

এবছরেও সেরা অভিনেতাদের তালিকায় মনোনয়ন পেয়েছেন ব্যাটম্যান খ্যাত ক্রিস্টিয়ান বেল, হ্যাংওভার খ্যাত ব্র্যাডলি কুপার, নবাগত রামি মালেক, লর্ড অফ দ্য রিংস খ্যাত ভিগো মর্টেন্সেন আর শক্তিমান অভিনেতা উইলেম ড্যাফো। এরপর মধ্যে বেল ছাড়া বাকি সবার জন্যেই অস্কার হয়ে আছে সোনার হরিণ। রামি মালেকের জন্যে তো এটাই প্রথম মনোনয়ন।

ওদিকে সহ-অভিনেতাদের তালিকায় মনোনয়ন পেয়েছেন মাহেরশালা আলী, অ্যাডাম ড্রাইভার, স্যাম এলিয়ট, রিচার্ড ই গ্রান্ট এবং স্যাম রকওয়েল। এদের মধ্যে অস্কার জয়ের স্বাদ পেয়েছেন কেবল মাহেরশালা আলী এবং স্যাম রকওয়েল।

Feature Image: PBS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.