পৃথিবীতে যেমন রয়েছে ধনী ব্যক্তি ঠিক তেমনি রয়েছে গরীব মানুষও। এসব ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে কেউবা নিজের প্রচেষ্টায় ধনী হয়ে ওঠে, কেউবা পারিবারিকভাবেই ধনী হয়ে থাকে। আবার কেউবা নানান কুকর্মে জড়িয়ে ধনী হয়ে ওঠে।

তবে কিছু ধনী মানুষ আছেন যারা সকলের আদর্শ, যাদের কাজ-কর্মের কারণে সারা পৃথিবী ব্যাপী তারা পরিচিত এবং সম্মানিত ব্যক্তিবর্গ হিসেবে খ্যাত। তাদের জীবনের প্রতিটি পর্যায়ের, প্রতিটি ধাপের কষ্ট, ত্যাগগুলো একেকজন মানুষের জন্য অনুকরণীয়। তাদের দেখেই অনেক মানুষ বড় হবার স্বপ্ন দেখে, বার বার হেরে গিয়েও পিছপা হয়না বরং নতুন উদ্যমে এগিয়ে যায় সামনের দিকে।

আজকে থাকছে এরকম কিছু মানুষদের নিয়ে আলোচনা, যদিও তাদের প্রত্যেকেই ঘুরে ফিরে সেরা ধনীর তালিকায় এসে থাকেন তবুও তাদের মধ্যে প্রতিযোগিতা কিন্তু লেগেই থাকে। চলুন জানি এই সকল ধনী মানুষদের সম্পর্কে,

২৫. লি শাও-কি

‘লি শাও-কি; source: newsstatic.rthk.hk’

গরীবের ঘরে জন্ম নেয়া একজন চীনা ধনী ব্যক্তি হচ্ছেন তিনি। যিনি আমাদের তালিকার সেরা ২৫ জন ধনী ব্যক্তির মধ্যে রয়েছেন। ১৯২৯ সালের ৭ মার্চ জন্মগ্রহণ করেছিলেন তিনি, বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৩১.৫ বিলিয়ন ডলার (২০১৮ সালের তথ্যানুযায়ী)। হংকং এর একটি রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠান সান হাং কাই এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে তিনি কর্মরত আছেন। ২০১২ সালে বিশ্বের সেরা ধনীদের তালিকায় তিনি প্রথম তালিকাভুক্ত হয়েছিলেন এবং বর্তমানে তিনি চীনের ২য় ধনী ব্যক্তি। তার স্ত্রী ছিলেন লাও ওয়াই কিউন এবং তিনি পাঁচ সন্তানের জনক।

২৮. লি কা-শিং

‘লি কা-শিং; source: i.pinimg.com’

তালিকায় এবারও একজন চীনা ব্যক্তির নাম। লি কা-শিং চীনের একজন জনপ্রিয় উদ্যোক্তা এবং ড্রপআউট হিসেবেও পরিচিত। ১৯২৮ সালের ১৩ জুন তিনি হংকং এ জন্মগ্রহণ করেছিলেন। বর্তমানে তার সম্পদের পরিমাণ ৩৪.৯ বিলিয়ন ডলার। তিনি সিকে হুচিশন হোল্ডিংস নামক একটি কোম্পানির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন এবং গত সালের মে মাসে তিনি কোম্পানি থেকে অব্যাহতি নিয়েছিলেন। স্ত্রী চং ইয়ট মিং ১৯৯০ সালে মারা যান এবং তিনি দুই সন্তানের জনক।

২৩. হুই কা ইয়ান

‘হুই কা-ইয়ান; source: timedotcom.files.wordpress.com’

১৯৫৮ সালের ৯ অক্টোবর চীনে জন্মগ্রহণ করা আরেকজন ধনী ব্যক্তি হচ্ছেন তিনি যিনি আমাদের তালিকায় ২৩ তম অবস্থানে রয়েছেন। তিনিও একজন রিয়েল এস্টেট ডেভেলপার। তাদের কোম্পানিটি ইতোমধ্যেই প্রায় ৭০০টি প্রজেক্ট নিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে যার মধ্যে ২৪০টিরও বেশি প্রজেক্ট চীনের বিভিন্ন শহরের মধ্যে বিদ্যমান। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৩৫.৫ বিলিয়ন ডলার।

২২. মুকেশ আম্বানি

‘মুকেশ আম্বানি; source: entrackr.com’

পেট্রোল পাম্পে কাজ করা কোনো ব্যক্তি যদি আজ একজন ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় নাম লেখাতে পারেন তবে তিনি হচ্ছেন মি. আম্বানি। তিনি ভারতে জন্মগ্রহণকারী একজন ধনকুবের। ১৯৫৭ সালের ১৯ এপ্রিল তার জন্ম হয়। তিনি বর্তমানে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং বৃহৎ শেয়ারের মালিক। তাছাড়া তাদের কোম্পানিটি বাজার মূল্যের দিক দিয়ে ভারতের সবথেকে মূল্যবান কোম্পানি। তার বর্তমান আয়ের পরিমাণ ৩৯.৬ বিলিয়ন ডলার।

২১. স্টিভ বালমার

‘স্টিভ বালমার; source: fm.cnbc.com’

২৪ মার্চ ১৯৫৬ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন তিনি। পেশায় একজন ব্যবসায়ী হলেও ২০১৪ সাল পর্যন্ত নিযুক্ত ছিলেন প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৪০ বিলিয়ন ডলার। স্ত্রী কন্নি সিডার এবং তিন সন্তানের পিতা তিনি।

২০. শেলডন অ্যাডেলসন

‘শেলডন অ্যাডেলসন; source: static.politico.com’

১৯৩৩ সালের ৪ আগষ্ট জন্মগ্রহণ করেছিলেন তিনি। পেশায় তিনি একজন ব্যবসায়ী এবং লাস ভেগাস স্যান্ডস নামক কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। তাছাড়া তিনি লাস ভেগাস, ম্যাকাও ও সিঙ্গাপুরের বিভিন্ন হোটেলের মালিক। তার সম্পদের পরিমান ৪০.১ বিলিয়ন ডলার। বর্তমানে তার সহধর্মীণী হিসেবে আছেন মিরিয়াম অচসরন এবং তিনি ৫ সন্তানের জনক।

১৯. এলিস ওয়ালটন

‘এলিস ওয়ালটন; source: wffcdn.scdn7.secure.raxcdn.com’

ওয়ালমার্টের প্রতিষ্ঠাতা স্যাম ওয়ালটনের কন্যা তিনি। ১৯৪৯ সালের ৭ অক্টোবর তিনি জন্মগ্রহণ করেছিলেন। বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৪৫.৬ বিলিয়ন ডলার।

১৮. এস রবসন ওয়ালটন

‘এস রবসন ওয়ালটন; source: upload.wikimedia.org’

উপরে উল্লেখিত এলিস ওয়ালটনের বড় ভাই এবং স্যাম ওয়ালটনের বড় ছেলে তিনি। ১৯৪৪ সালের ২৮ অক্টোবর তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯২ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত ওয়ালমার্টের চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত ছিলেন। বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৪৭ বিলিয়ন ডলার। মেলানি লওম্যান ও্যালটন তার স্ত্রী এবং তিনিও তিন সন্তানের জনক।

১৭. জিম ওয়ালটন

‘জিম ওয়ালটন; source: static1.squarespace.com’

ওয়ালটন ফ্যামিলি যেন তালিকা থেকে সরতেই চাইছে না, তাই এবারেও ওয়ালটন পরিবারের আরেক সদস্য জিম ওয়ালটন থাকছেন আমাদের তালিকার ১৭তম ধনী ব্যক্তি হিসেবে। স্যাম ওয়ালটনের ছোট ছেলে হচ্ছেন জিম। ১৯৪৮ সালের ৭ জুন তিনি জন্মগ্রহণ করেন। বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৪৭.৩ বিলিয়ন ডলার। লেইন ম্যাকনাব তার স্ত্রী এবং পাঁচ সন্তানের জনক।

১৬. জ্যাক মা

‘জ্যাক মা; source: www.delltechnologies.com’

আবারো একজন চীনা ধনী ব্যক্তির নামের দেখা মিললো আমাদের তালিকায়। জ্যাক মা ১৯৬৪ সালের ১০ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বর্তমানে আলিবাবা গ্রুপ নামক কোম্পানির কো-ফাউন্ডার এবং এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান হিসেবে কর্মরত আছেন। বর্তমান প্রজন্মের উদ্যোক্তাদের কাছে তিনি এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হিসেবে পরিচিত। তার সম্পদের পরিমাণও ৪৭ বিলিয়ন ডলারের বেশি। জ্যাং ইয়ং তার সহধর্মীণী এবং তিনি তিন সন্তানের জনক।

১৫. ফ্রাঙ্কোইস বেট্টেনকোর্ট মেয়ারস

‘ফ্রাংকোইস মেয়ারস; source: timedotcom.files.wordpress.com’

ল’রিয়াল নামক প্রসাধনী সামগ্রী নির্মাতা কোম্পানির সাথে আমরা সবাই কম-বেশি পরিচিত আর সেই কোম্পানির চেয়ারম্যান পদেই অভিষিক্ত আছেন তিনি। যার সম্পদের পরিমাণও ৪৮.৭ বিলিয়ন ডলার। ফ্রান্সের এই ধনী নারীর স্বামী হচ্ছেন জেন-পিয়ারে মেয়ারস এবং তিনি ২ সন্তানের জননী।

১৪. সার্জেই ব্রিন

‘সার্জেই ব্রিন; source: cdn.vox-cdn.com’

যার কল্যাণে এই লেখাগুলো লিখতে পারছি, এত এত তথ্য জানাতে পারছি তাকে যদি তালিকায় নাই রাখি তাহলে সেটা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। ১৯৭৩ সালের ২১ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন তিনি। পেশায় তিনি একজন কম্পিউটার বিজ্ঞানী এবং উদ্যোক্তা। ল্যারি পেইজের সাথে তিনি গড়ে তোলেন পৃথিবীর সবথেকে বড় সার্চ ইঞ্জিন গুগল। তাছাড়া তিনি গুগলের প্যারেন্ট কোম্পানি অ্যালফাবেটের সভাপতি হিসবেও নিযুক্ত আছেন। তার মোট আয়ের পরিমাণ ৫০.৬ বিলিয়ন ডলার।

১৩. মা হুতাং

‘মা হুতাং; source: cdn4.i-scmp.com’

১৯৭১ সালের ২৯ অক্টোবর চীনে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তাকে পনি মা নামেও অনেকে চেনেন। তিনি পেশায় একজন ইঞ্জিনিয়ার, উদ্যোক্তা। এশিয়ার অন্যতম মূল্যবান একটি কোম্পানি টেনসেন্ট এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, ফাউন্ডার চেয়ারম্যান তিনি। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৫১.১ বিলিয়ন ডলার।

১২. মাইকেল ব্লুমবার্গ

‘মাইকেল ব্লুমবার্গ; source: mediadc.brightspotcdn.com’

আমেরিকার একজন উদ্যোক্তা, রাজনীতিবীদ এবং ব্যবসায়ী তিনি। ১৯৪২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি তিনি আমেরিকাতে জন্মগ্রহণ করেন। বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৫১.৮ বিলিয়ন ডলার এবং তিনি আমেরিকার ৮ম ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় থাকা একজন ব্যক্তি। তিনি ব্লুমবার্গ এল.পি নামক সফটওয়্যার, ডাটা নিয়ে কাজ করা কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা, মালিক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা।

১১. ল্যারি পেইজ

‘ল্যারি পেইজ; source: i.imgur.com’

আবারও সেই গুগলের প্রতিষ্টাতাদের তালিকা চলেই আসলো। ল্যারি পেইজও একজন কম্পিউটার বিজ্ঞানী এবং উদ্যোক্তা। তিনিও গুগলের প্যারেন্ট কোম্পানি অ্যালফাবেটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। তার মোট আয়ের পরিমাণ ৫৩.৫ বিলিয়ন ডলার।

১০. ডেভিড কোচ

‘ডেভিড কোচ; source: www.greenpeace.org’

তিনি একাধারে একজন কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার, রাজনীতিবিদ এবং ব্যবসায়ী। তিনি তাদের পারিবারিক ব্যবসা কোচ ইন্ডাস্ট্রিজের সকল কাজকর্ম দেখাশোনা করে থাকেন এবং তাদের কোম্পানিটি আমেরিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম প্রাইভেট কোম্পানি। তিনি কোম্পানিটির ৪২ শতাংশ শেয়ারধারী এবং তার ভাই চার্লস কোম্পানিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে কর্মরত আছেন। বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৬১.৮ বিলিয়ন ডলার।

৯. চার্লস কোচ

‘চার্লস কোচ; source: timedotcom.files.wordpress.com’

বিশ্বের ধনী দুই ভাইয়ের কথা যদি বলা হয় তবে তারা হলেন উপরে উল্লেখিত ডেভিড এবং এখানের চার্লস কোচ। যারা কিনা যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় প্রাইভেট কোম্পানির মালিক আর তাদের কোম্পানিটির বাজার মূল্য ১১৫ মিলিয়ন ডলার। তার ভাই ব্যবসায়ী হলেও চার্লস একজন উদ্যোক্তা এবং তাদের কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। তার মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৬২ মিলিয়ন ডলারের মতো।

৮. ল্যারি ইলিসন

‘ল্যারি ইলিসন; source: cdn.vox-cdn.com’

মি. লরেন্স জোসেফ এলিসন কিন্তু পুরো প্রযুক্তি বিশ্ব তাকে চেনে এক নামে আর তা হল ল্যারি ইলিসন। কর্মরত আছেন ওরাকল কর্পোরেশনের সহ প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। অনেকগুলো স্কুল, কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হলেও পড়াশোনা শেষ করতে পারেননি। সেগুলো কিন্তু কম্পিউটারের প্রতি তীব্র আগ্রহ থাকায় গড়ে তোলেন সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ল্যাবরেটরিজ। বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৬৪.১ বিলিয়ন ডলার।

৭. অ্যামেচিও অর্তেগা

‘অয়ামেচিও অর্তেগা; source: moneyinc.com’

তিনি একজন স্প্যানিশ ব্যবসায়ী এবং ইন্ডিটেক্স গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রাক্তন চেয়ারম্যান ছিলেন। তার কোম্পানিটি বিশেষত ‘জারা’ নামক কাপড় ও অন্যান্য সামগ্রী তৈরির জন্য বিশেষভাবে পরিচিত। বর্তমানে তার আয়ের পরিমাণ ৭০.৫ বিলিয়ন ডলার।

৬. কার্লোস স্লিম

‘কার্লোস স্লিম; source: www.alux.com’

মি. স্লিম একজন মেক্সিকান টেলিকমিউনিকেশন ব্যবসায়ী। ২০১০ থেকে ২০১৩ সাল তিনিই ছিলেন পৃথিবীর সর্বোচ্চ ধনী ব্যক্তি (ফোর্বসের তথ্যমতে)। তারও মোট সম্পদের পরিমাণ ৭০.৫ বিলিয়ন ডলারের ওপরে।

৫. মার্ক জুকারবার্গ

‘মার্ক জুকারবার্গ; source: cdn-images-1.medium.com’

ফেসবুকের কল্যাণে এই মানুষটির নাম জানেন না এমন মানুষকে খুঁজে পাওয়াটা কষ্টকর। আর নিজ কর্মগুণে তরুণ উদ্যোক্তাদের মধ্য থেকে উঠে এসেছেন পৃথিবীর সেরা ধনীদের দলে। তিনি ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রেসিডেন্ট। তার মোট আয়ের পরিমাণ ৭৪.৬ বিলিয়ন ডলার।

৪. বেরনার্ড আরনল্ট

‘বেরনার্ড আরনল্ড; source: fm.cnbc.com’

ফ্রান্সের অন্যতম পরিচিত একজন ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত তিনি। তাছাড়া কর্মরত ছিলেন লুইস ভিট্টন মোয়েট হেনেনসি নামক কোম্পানির চেয়ারম্যান এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে। বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৭৫.৭ বিলিয়ন ডলার।

৩. ওয়ারেন বাফেট

‘ওয়ারেন বাফেট; source: img.etimg.com’

একজন মার্কিন ব্যবসায়ী, উদ্যোক্তা, বিনিয়োগকারী হিসেবেই তিনি বেশি পরিচিত। পৃথিবীর প্রায় সব উদ্যোক্তা কিংবা স্বপ্ন দেখতে পছন্দ করে এমন মানুষের কাছে তিনি এক অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত। তিনি বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ে কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৯১.৩ বিলিয়ন ডলার।

২. বিল গেটস

‘বিল গেটস; source: www.millionairessaying.com’

এতদিন পর্যন্ত যিনি ছিলেন পৃথিবীর সর্বোচ্চ ধনী ব্যক্তি তিনি এখন আছেন দ্বিতীয় অবস্থানে। তিনি মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং সফটওয়্যার নির্মাতা। তিনি একটানা ১৩ বছর ধরে পৃথিবীর সর্বোচ্চ ধনী ব্যক্তি ছিলেন। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৯২.২ বিলিয়ন ডলার।

১. জেফ বেজোস

‘জেফ বেজোস; source: cdn.vox-cdn.com’

আমাদের তালিকাতেই শুধু নয় তিনি সব তালিকাতেই বর্তমানে পৃথিবীর সবথেকে ও সর্বোচ্চ ধনী ব্যক্তি যিনি বিল গেটসকে পেছনে ফেলেছেন। তিনিও উদ্যোক্তাদের জন্য এক অনুকরণীয় আদর্শ। তিনি আমাজন.কম নামক প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা, চেয়ারম্যান, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং সভাপতি। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ১০০ বিলিয়ন ডলার।

এই ছিল পৃথিবীর সেরা ২৫ জন ধনী ব্যক্তিদের নিয়ে আয়োজন যারা তালিকাভুক্ত হয়েছেন ২০১৮ সালের সম্পদের পরিমাণ অনুযায়ী। চেষ্টা করে দেখতে পারেন এই তালিকার কারো মত হয়তো একদিন আপনিও হয়ে যেতে পারেন শ্রেষ্ঠ ধনীদের একজন।

Featured Image Source: www.thenational.ae

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.